মঙ্গলবার , ডিসেম্বর ৬ ২০২২
Home / সারা দেশ / পঞ্চগড়ে যৌতুক না দেয়ায় গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা, ২ মাসেও আসামী গ্রেফতার হয়নি কেউ

পঞ্চগড়ে যৌতুক না দেয়ায় গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা, ২ মাসেও আসামী গ্রেফতার হয়নি কেউ

পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ
বোদা উপজেলার বোতলডাঙ্গা গ্রামের মৃত হেলাল উদ্দীনের মেয়ে কল্পনা আক্তারের সাথে দেবীগঞ্জ উপজেলার শালডাঙ্গা ইউনিয়নের শিকারপুর গুচ্ছগ্রামের জাহান আলীর ছেলে নুর নবীর প্রায় ২ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। তাদের ৭ মাস বয়সের একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই কল্পনা আক্তারকে ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে আসছিল। কল্পনা আক্তার যৌতুকের ২ লক্ষ টাকা পিতার বাড়ি থেকে এনে না দেয়ার কারণে কল্পনা আক্তারের উপর চলত অমানুষিক শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। যৌতুক এনে না দেয়ার কারনে প্রতিনিয়ত স্বামী, ননদ, শ্বাশুড়ী ও শ্বশুড় মিলে নির্যাতন চালাত। গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর যৌতুকের কারণে কল্পনা আক্তারের উপর স্বামী, ননদ, শ্বাশুড়ী ও শ্বশুড় অমানসিক নির্যাতন শুরু করে। এলোপাথারি ভাবে মারপিট করে গুরুতর আহত করে। মারপিটের একপর্যায়ে কল্পনা আক্তার মাটিতে লুটিয়ে পড়ে, পরে আহত অবস্থায় তাকে বোদা উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কল্পনা আক্তার মারা যায়।। মারা যাওয়ার পর কল্পনা আক্তারের লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামী ও শ্বশুড়-শ্বাশুড়ী হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় ময়না তদন্তের পর বোদা থানায় একটি ইউডি মামলা হয়। কল্পনা আক্তারের মামা পূর্ব শিকারপুর গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে হযরত আলী বাদী হয়ে নুর নবী, জরিনা খাতুন, জুয়েনা খাতুন ও জাহান আলীকে আসামী করে দেবীগঞ্জ থানায় এজাহার দাখিল করেন। প্রায় ২মাস পাড় হয়ে গেলেও এখনো কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি। কল্পনা আক্তারের মা জোসনা বেগম জানান আমরা গরীব মানুষ। আমরা বিভিন্ন জায়গায় কাজকর্ম করে জীবিকা নির্বাহ করি। আমরা গরীব মানুষ হওয়ায় সুষ্ঠ বিচার পাচ্ছি না। আমার মেয়ের হত্যার ঘটনায় জড়িতদের উপযুক্ত বিচার চাই। মামলার বাদী হযরত আলী জানান দেবীগঞ্জ থানার এসআই সুজিতের মাধ্যমে থানায় একটি এজাহার জমা দেন। তিনি আরো জানান কবে ফরেনসিক রিপোর্ট আসবে আর আসামী গ্রেফতার করা হবে। আমরা তা আদৌ জানিনা। আমার ভাগনি হত্যার আসামীদের দ্রæত গ্রেফতারের দাবী জানাই। দেবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ রবিউল হাসান সরকার জানান, অভিযোগ আমাদেরকে দিয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য বোদা থানায় পাঠাই। ময়না তদন্তের পরে বোদা থানায় একটি ইউডি মামলা হয়। ফরেসিক রিপোর্ট ছাড়া আসামী ধরার কোন বিধান নেই।

About admin

Check Also

ডাকাতির পর গৃহবধূকে খুন, ৬ আসামির যাবজ্জীবন

কুমিল্লায় ডাকাতির পর গৃহবধূকে হত্যার দায়ে ৬ আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। সেই সঙ্গে …

চৌগাছায় জাতীয় পার্টির সম্মেলন সভাপতি নাজিম-সম্পাদক মকবুল

যশোরের চৌগাছায় জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।  বুধবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে উপজেলা জাতীয় পাটির …

প্রধানমন্ত্রী’র জনসভা সফল করার লক্ষ্যে লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদের প্রস্তুতি সভা

আগামী ৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মহানগর-উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *