শনিবার , জানুয়ারি ২১ ২০২৩
Home / জাতীয় / করোনা থেকে বাঁচতে পরিচ্ছন্ন রাখুন কর্মস্থল

করোনা থেকে বাঁচতে পরিচ্ছন্ন রাখুন কর্মস্থল

বিশ্ব জুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১১৪টি দেশে ছড়িয়েছে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসটি। মূলত এর সংক্রমণ ঘটে মানুষের মাধ্যমে। আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসলে এবং তার স্পর্শ করা কোনো কিছু স্পর্শ করলে তখন অন্যদের মধ্যে করোনার জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে। এই শঙ্কার মধ্যে সবচেয়ে বেশি রয়েছেন অফিসপাড়ার লোকজন

কেননা এরা বাড়ির চেয়ে কর্মস্থলে বেশি সময় কাটান। তাই নিজের কর্মস্থলকে যথাসম্ভব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা খুবই প্রয়োজন। যেখানে সহকর্মীদের ছোঁয়া লাগে সেসব রাখতে পরিচ্ছন্ন। তবে এই পরিচ্ছন্নতা হতে হবে জীবাণুমুক্ত পদ্ধতিতে। কর্মস্থলে থাকা কম্পিউটার, কি-বোর্ড, মাউস, কম্পিউটার ডেস্ক, মেঝে, লিফট, দরজা সব কিছুই জীবাণুমুক্ত রাখতে হবে।

কর্মস্থল জীবাণুমুক্ত রাখার বিষয়ে ‘সেন্টারস ফর ডিজেজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রোটেকশন অ্যান্ড অকুপেশনাল সেফটি অ্যান্ড হেলথ অ্যাডমিনেস্ট্রেশন (ওএসএইচএ)’ কিছু গাইড লাইন দিয়েছে। সে মতে- কম্পিউটার ডেস্ক, কীবোর্ডের মতো অফিসের ব্যবহার্য জিনিসপত্রে অন্তত তিন থেকে পাঁচ মিনিট জীবাণুনাশক দিয়ে রাখতে হবে। এরপর সেটিকে খুব ভালোভাবে টিস্যু পেপার দিয়ে মুছে ফেলতে হবে।

এছাড়া অফিসে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গে ভালো করে হাত পরিষ্কার করতে হবে। অফিসে কোনো কিছু খাওয়ার আগে এবং পরে উভয় সময়ে হাত জীবাণুমুক্ত করতে হবে। কোনো কারণে যদি হাত ধোয়ার মতো পর্যাপ্ত সুযোগ না থাকে তাহলে জীবাণুনাশক হ্যান্ড স্যানিটাইজার স্প্রে বিকল্প হতে পারে।

সহকর্মী কিংবা বাইরের কেউ আসলেই তাদের সঙ্গে হাত মেলানো, কোলাকুলি করা থেকে বিরত থাকতে হবে। কারণ এসবের মাধ্যমে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যায়।

নিজের শখের স্মার্টফোনটিতেও থাকতে পারে প্রচুর পরিমাণ ব্যাক্টেরিয়া, ভাইরাসের মতো প্রাণঘাতি জীবাণু। শুধু তাই নয়, ফোনে ৪ দিন বেঁচে থাকতে পারে করোনা জীবাণু। তাই স্মার্টফোনটিকেও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার বিষয়ে বিশেষ সতর্ক হতে হবে। স্মার্টফোনটিকে জীবাণুমুক্ত করতে টিস্যু পেপারে জীবাণুনাশক মাখিয়ে ফোনের উভয়পাশে ভালোভাবে পরিষ্কার করুন।

খেয়াল রাখুন দরোজার লকের দিকে। এর মাধ্যমেও ছড়াতে পারে করোনা। তাই এই জিনিসটিও জীবাণু মুক্ত রাখুন। যে কোন মেটালে ছয় দিন ধরে বেঁচে থাকতে পারে ভাইরাস। তাই জীবাণুনাশক দিয়ে এটিও পরিষ্কার রাখুন।

আর কর্মস্থলে নিরাপদ থাকতে খেয়াল রাখতে হবে যেন ব্যবহার্য জিনিসপত্র পরিষ্কার করার চেয়ে বরং সেটিকে সত্যিকার অর্থে জীবাণুমুক্ত করা যায়।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ কোরিয়ার এক অফিস থেকেই ৫০ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে ৪৬ জন ওই অফিসের কর্মী। আর বাকি চারজন আক্রান্তদের পরিবারের সদস্য।

About admin

Check Also

সাংবিধানিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হয় এমন কোনো উদ্ভট ধারণাকে প্রশ্রয় দেবেন না

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাংবিধানিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হয় এমন কোনো উদ্ভট ধারণাকে প্রশ্রয় এবং ইন্ধন না …

উন্নয়ন প্রকল্পগুলো শেষ করাই নতুন বছরের চ্যালেঞ্জ: আইনমন্ত্রী

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, আমরা জনগণকে দেশের উন্নয়নের অঙ্গীকার করেছিলাম। …

রাজনৈতিক নয়, কূটনীতি হবে অর্থনৈতিক: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় শিল্পকে আরও কার্যকর করতে দেশীয় বাজার সম্প্রসারণ এবং জনগণের ক্রয়ক্ষমতা বৃদ্ধির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *