শনিবার , এপ্রিল ১৩ ২০২৪
Home / আন্তর্জাতিক / ছোঁয়া এড়াতে কোমরে বিশালাকার বেড়ি পরে ঘুরছেন একজন

ছোঁয়া এড়াতে কোমরে বিশালাকার বেড়ি পরে ঘুরছেন একজন

করোনাভাইরাসে চীনের পর সবচেয়ে বেশি ক্ষতির শিকার ইতালি। নিজেদের মতো করে সুরক্ষা-কবচ বানিয়ে গৃহবন্দি সে দেশের মানুষ। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়।

এই পরিস্থিতি রোমের রাস্তায় এক অতিকায় কাপবোর্ডের বেড়ি পরে রাস্তায় ঘুরতে দেখা গেল এক প্রৌঢ়কে। জানা গিয়েছে, কোনো নাগরিক যেন তার ধারেকাছে ঘেঁষতে না পারে তাই এই উদ্যোগ। ইনডেপেনডেন্ট সূত্রে খবর, গোটা রোম শহর এখন প্রায় গৃহবন্দি। সেই শহরেই কমলা রঙের কাপবোর্ডের বেড়ি কোমরে পরে নিশ্চিন্তে ঘুরছেন এক নাগরিক।
সাম্প্রতিক স্যোশাল মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওর প্রসঙ্গ টেনে এই দাবি করেছে ইনডেপেনডেন্ট। জানা গিয়েছে, সেই ভিডিও রোমে তোলা। আর চিত্রগ্রাহক ওই নাগরিককে যখন প্রশ্ন করেছিলেন, এটা কেন পরেছেন? জবাব এসেছে করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে।

স্যোশাল মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই শেয়ার ও মন্তব্যে ভরেছে সেই ভিডিওর দেওয়াল। প্রায় ২১ হাজার ভিউ ও হাজারের বেশি মন্তব্য সেই ভিডিওর নীচে পড়েছে। রসিক নেটিজেনদের মন্তব্য, “উনি দরজা দিয়ে ঘরে ঢুকবেন কীভাবে?” একজনের মন্তব্য, “অসাধারণ পদক্ষেপ।”

করোনা সংক্রমণ রুখতে গোটা ইতালি জুড়ে গৃহবন্দি দশা। ইউরোপের এই দেশে এখনও পর্যন্ত মৃত প্রায় ১৮০০ আর সংক্রামিত ১৭ হাজার। হু-এর নির্দেশিকা সহ নাগরিকদের থেকে অন্তত ৩ ফুটের দূরত্ব বজায় রাখতে বলেছে। সর্দি বা কাশি সংক্রামিত এমন নাগরিকদের থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে পরামর্শ দিয়েছে হু।

জানা গিয়েছে, কেউ কাশলে বা হাঁচলে তাঁর সঙ্গে কয়েকফোটা কফ বেরোয়। সেই কফে কোভিড-১৯ থাকতে পারে। তাই আপনি যখন সেই ব্যক্তির সংস্পর্শে বা কাছে আসছেন সেই ভাইরাস আপনাকেও সংক্রামিত করতে পারে।

About admin

Check Also

বিমান হামলায় বিধ্বস্ত গাজার হাসপাতাল, নিহত ৫শ’র বেশি

বিমান হামলায় বিধ্বস্ত ফিলিস্তিনের গাজার হাসপাতাল। নিহত হয়েছে ৫শ’রও বেশি। এ হামলার ঘটনায় পাল্টাপাল্টি দোষারোপ …

ইমরান খান ও স্ত্রী বুশরার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান ও তার স্ত্রী বুশরা বিবিসহ দলটির ৮০ জনেরও বেশি নেতার দেশত্যাগে …

ধ্বংসের দ্বারপ্রান্ত থেকে সরে আসুন: জাতিসংঘ মহাসচিব

ইউক্রেনে যুদ্ধ বন্ধে আরও একবার জোরালো ভাষায় আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব। এই যুদ্ধ ইউরোপ এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *