মঙ্গলবার , ডিসেম্বর ৬ ২০২২
Home / আন্তর্জাতিক / করোনা সঙ্কটে ট্রুডোর হৃদয়স্পর্শী ভাষণ

করোনা সঙ্কটে ট্রুডোর হৃদয়স্পর্শী ভাষণ

সময় যত গড়াচ্ছে ততোই ভয়াবহ হয়ে উঠছে মরণঘাতি করোনার থাবা। বিশ্বব্যাপী ক্রমেই বেড়ে চলেছে এ ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। চীনে উৎপত্তি হলেও বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারিতে এখন সবচেয়ে খারাপ অবস্থা ইতালিতে। সেখানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। ছড়িয়ে পড়েছে আমেরিকাতেও। বাদ নেই কানাডাও।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় ৩৪১ জনের দেহে করোনার উপস্থিতি সনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে এবং সুস্থ হয়েছেন ১১ জন। এসব আক্রান্তদের চিকিৎসার্থে বাড়ি ভাড়া থেকে শুরু করে সব ধরণের আর্থিক দায়িত্ব নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ট্রুডো।

এদিকে, সস্ত্রীক ১৪ দিনের সেল্ফ আইসোলেশনে রয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তার স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হলেও ট্রুডোর শরীরে এখনও করোনার সংক্রমণ ঘটেনি। এর মাঝেই গত ১৬ মার্চ স্থানীয় সময় সকালে জাতির উদ্দেশে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য দিয়েছেন জাস্টিন ট্রুডো।

করোনা নিয়ে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষন বাংলায় হুবুহু তুলে ধরা হলো-

প্রিয় কানাডাবাসী, আমি জানি আজ সবাই কঠিন সময় পার করছেন। আশা করি এই বিপদ আমরা কাটিয়ে উঠবো। তবে সেই জন্য আপনাদের সাহায্য আমার দরকার।

আপনাদের জন্য আমি আজ প্রধানমন্ত্রী। জনগণের সেবা ও নিরাপত্তা দেয়া আমার প্রধান কাজ। আমি চাইলে নিজে ঘরে বন্দি থাকতে পারতাম। তবুও ঝুঁকি নিয়ে আপনাদের খোঁজ খবর নিচ্ছি, বাইরে বের হচ্ছি। কারণ, আপনারাই আমার অক্সিজেন। আপনারা সুস্থ থাকলেই আমি সুস্থ। আপনাদের থেকে গুরুত্বপূর্ণ আমার কাছে কিছুই নেই।

আপনাদের কাছে অনুরোধ, আপনারা এক মাস নিজ বাসায় অবস্থান করুন। শুধুমাত্র মেডিসিন, প্রয়োজনীয় খাবার, পানীয়র দোকানগুলো খোলা রাখবেন। তবুও সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিটি নাগরিকের বাসায় এক মাসের যাবতীয় সব ধরনের খাবার পানি, মেডিসিন, মাস্ক আমরা পৌঁছে দিচ্ছি। তাছাড়া আপনাদের যখন যা লাগে আপনাদের দেয়া নাম্বারে যোগাযোগ করবেন, আপনাদের বাসায় সব কিছু পৌঁছে দেয়া হবে। তবুও বাইরে বের হবেন না।

ভয় নেই, কাউকে অনাহারে মরতে হবে না। আপনারা নিজ বাসায় অবস্থান করুন, সচেতন থাকুন। আপাতত আমাদের দেশ লক ডাউন করে দিচ্ছি। পরিস্থিতি ঠিক হলে আবার খুলে দিব। আমার উপর আপনারা আস্থা রাখুন।

আপনারা যারা অফিস আদালত কিংবা অন্য প্রতিষ্ঠানে কাজে নিয়োজিত ছিলেন, আপনাদের কারও কাজে যেতে হবে না। সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অফিস কারখানা বন্ধ ঘোষণা করলাম।

ভয় নেই, আপনাদের সবার একাউন্টে আপনাদের মাসিক বেতনের টাকা পৌঁছে যাবে। শুধু তাই নয়, আপনারা যারা বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন, সেই ভাড়াও সরকার বহন করবে। এসব নিয়ে একটুও চিন্তিত হবার কারণ নেই। আপনাদের ভালো রাখাই আমার কাজ। যারা সরকারের নিয়ম মানবে তাদের এক কালীন অতিরিক্ত অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে।

করোনা আজ পুরা দুনিয়ার এক আতংকের নাম। আপনাদের সবার সহযোগিতা দরকার। আপনারা কেউ ঘর থেকে বের হবেন না। বাসায় থাকুন এবং সচেতনতার সাথে থাকুন। আশা করি, শীঘ্রই আমরা এই সংকট কাটিয়ে উঠবো। এই জন্য দয়া করে আপনারা আমাকে সহযোগিতা করুন। ধন্যবাদ।

About admin

Check Also

দ্বিতীয় মেয়াদে বিজয়ী হলেন অ্যাঙ্গোলান প্রেসিডেন্ট লরেনকো

অ্যাঙ্গোলার প্রেসিডেন্ট জোয়াও লরেনকো সোমবার দ্বিতীয় মেয়াদে পাঁচ বছরের জন্য জয়লাভ করেছেন। গত সপ্তাহের কঠিন …

সাহায্যের আকুতি জানিয়ে পাকিস্তানের বন্যার্তদের চিরকুট

পাকিস্তানে খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে মানুর উপত্যকায় নদীর দুধারে বন্যার কারণে আটকে পড়েছে শত শত মানুষ। …

মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত‌কে ডে‌কে কড়া প্রতিবাদ ঢাকার

মিয়ানমার থেকে উড়ে এসে বান্দরবান সীমান্তে দুটি মর্টার শেল পড়ার ঘটনায় ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *